গাজীপুর প্রতিনিধি:
গাজীপুর জেলার শ্রীপুর পৌর এলাকার বেড়াইদের চালা গ্রামে এক বিধবা নারীর জমিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করে নির্মাণ কাজ অব্যাহত রাখায় থানায় অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী ওই নারী। পরে পুলিশের নিষেধ করায় কাজ বন্ধ করেছে অভিযুক্তরা।

ভুক্তভোগী হাজেরা খাতুন (৭৫) বেড়াইদের চালা গ্রামের মৃত আবু বকর ছিদ্দিকের স্ত্রী। তার ৩ জন কন্যা সন্তান রয়েছে। নালিশি সম্পত্তির পরিমাণ পৌনে ৭১ শতাংশ। মূল্য আনুমানিক ২ কোটি টাকা।

ওই জমি জবরদখলকারী অভিযুক্তরা হলেন, বেড়াইদের চালা গ্রামের মৃত আনোয়ারুল হকের সন্তান কবিরুল হক (৬০) ও কুদরত আলীর সন্তান শফিকুল ইসলাম (৩৫)।

অভিযোগের ভিত্তিতে জানা যায়, স্বামীহারা অসহায় বিধবা হাজেরা খাতুন ও তার তিন কন্যার সম্পত্তি আদালতের আদেশ অমান্য করে
জবরদখলের চেষ্টা করলে জাহেরা খাতুনের সন্তান আমেনা খাতুন বাদী হয়ে গাজীপুর আদালতে মামলা ৫/১৮ দায়ের করেন। পরে আদালতের আদেশ অমান্য করেই জমি দখলের চেষ্টায় লিপ্ত থাকে তারা। এরপর আমেনা খাতুন কোর্ট ভায়োলেশন মামলা দায়ের করেন, দুটি মামলা চলমান অবস্থায় জাহেরা খাতুনদের পক্ষে রায় আসলে কবিরুল হক আপিল করেন। এরপর আবারও ১ ফেব্রুয়ারি সকালে বিবাধীগন দা’লাঠি নিয়ে তাদের জমিতে বাড়িঘর নির্মান করার চেষ্টা করে। ভুক্তভোগীরা বাধা দিলে অভিযুক্তরা তাদেরকে খুন জখমের হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়।
ভুক্তভোগীরা আরও জানিয়েছেন, ওই জমি রবিউলের থেকে আমরা ক্রয় করি ২০০২ সালে। অভিযুক্তরা ক্রয় করে ২০১৪ সালে। এজন্যই আদালত থেকে নির্মাণ কাজে নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্ত কবিরুল ইসলাম বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) জানিয়েছেন, আমরা আদালতের আদেশ অমান্য করবো না। ওই জমিটা আমাদের। আমাদের খাজনা খারিজ সব দেওয়া আছে। আদালতের অনুমতি নিয়েই আমরা পূনরায় কাজ শুরু করবো।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর থানার এসআই আশরাফুল্লাহ জানিয়েছেন, অভিযুক্তদের নালিশী সম্পত্তিতে কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছি। তারা কাজ বন্ধ রেখেছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *